loading...

আপু প্রতিরাতেই আমি ১৫ থেকে ২০ জনের সাথে…

বিস্তারিত জানতে ছবিতে ক্লিক করুন

Loading...

আখিঁ ছদ্মনাম, আপু কেমন আছেন, আমার ঘটনা শোনার পরে আপনি কিন্তু আমাকে খারাপ ভাবতে পারবেন না।

আমি এক কঠিন নেশায় ভুগছি কিন্তু আপু বিশ্বাস করেন এটা আমার পেশা নয়,আমার ফ্যামিলি অনেক স্বচ্ছল,বাবা গার্মেন্টস ব্যাবসায়ী, আমার আম্মু আইনজীবী, আমার একমাত্র ভাইয়া আমেরিকা তে থাকে।

সুতরাং বুঝতেই পারছেন আমাদের পরিবারের কন্ডিশন কিন্তু আমি এখন যে বিষয়টি শেয়ার করবো সেটা একান্তভাবে আমার ব্যাক্তিগত। আপু আমি এই সমস্যা থেকে কিছুতেই বের হতে পারছিনা, আমি জানি আমার এটা করা ঠিক হচ্ছে না,তবুও আমি যে কিছুতেই ছাড়তে পারছিনা।

আমার সমস্যাটা একটু ব্যাতিক্রমধর্মী, আমি এখন একটা প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে বিবিএ পড়ছি,আমি যখন ক্লাস সেভেনে পড়ি তখন থেকেই আমার এই উদ্ভট নেশা শুরু হয় যে নেশা এখন একপ্রকার জীবনের সাথে গেথে আছে।

loading...

তাহলে বেশ খোলাখুলিভাবে বলি আপু আপনাকে, একদিন আমি ফেসবুকে একটি আইডিতে দেখেছিলাম ফোন সেক্স করা হয়, একটি মেয়ে স্টাট্যাস দিয়েছি টাইম চুক্তিতে বিভিন্ন রেটে আমি এই বিষয়টি নিয়ে নিজে নিজে বেশ মজা পেলাম ভাবলাম একটু ফাজলামো করি ছেলেদের সাথে, আমি একটি ফেক আইডি খুলে বিজ্ঞাপন দিলাম কিন্তু লিখলাম সম্পূর্ণ বিনামূল্যে করা হবে এই কাজ, তারপর থেকে ফেসবুকে অগনিত মেসেজ আসতে থাকে, একদিনেই দুই হাজার মেসেজ পেয়েছি, আর যে নাম্বারটি দিয়েছিলাম সেটা রাতে চালু রাখতাম আব্বু আম্মু ঘুমিয়ে যাবার পরে, অনেক বয়স্ক থেকে শুরু করে বিভিন্ন বয়সের ছেলেরা আমাকে ফোন দিতো।

আপু প্রতিরাতেই আমি ১৫ থেকে ২০ জনের সাথে ফোন সেক্স করতাম,যার সাথে কথা বলতে ভালো লাগতো, তাকে একটা বেশী সময় দিতাম। কিন্তু আপু এটা যে একপ্রকারের নেশা হয়ে যাবে আমি সেটা কখনোই ভাবিনি, আমি রাতে সিম চালু করলেই ছেলেরা কল দিয়ে এসব বলতে শুরু করে, আপু আমি মাঝেমধ্যে মনে করি এভাবে এগুলো করবো না, কিন্তু একদিন এগুলো থেকে নিজেকে বিরত রাখলে আমি যেন একপ্রকার অসুস্থ হয়ে যাই, আমি আমার এই যৌবনে কখনো কোন ছেলের সাথে সরাসরি খারাপ কিছুই করিনি, কিন্তু এই অদ্ভুত নেশা আমাকে পেয়ে বসেছে, এখন আপনার কাছে আমার সবিনয় অনুরোধ আমাকে গোপনে কিছু পরামর্শ দিয়েন, আর আপনাদের পেজে এটা পাব্লিশ করবেন কিন্তু আমার ছদ্মনাম দিবেন।

অনেকেই আমার মনের অবস্থা না বুঝে হয়তো গালি দিবে তবে এখান থেকে আমি ভালো কিছু পরামর্শ পেতে পারি কারণ কেউ না কেউ আমাকে হয়তো বুঝবে।

 

বিস্তারিত জানতে ছবিতে ক্লিক করুন

Loading...
Loading...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*