স্ত্রীর বান্ধবীর সাথে দৈহিক সম্পর্কে জড়িয়ে গেছি…এখন আমি কী করব ?

বিস্তারিত জানতে ছবিতে ক্লিক করুন

Loading...

আমি একটা মাল্টি ন্যাশনাল কোম্পানিতে জব করি। বিয়ে হয়েছে ১ বছর হল। সম্পর্ক ভালই চলছিল। কিন্তু এক ঘেয়ে জীবন। অফিস বাসা অফিস বাসা।আমার বউ গত মাসে বিবিএ শেষ করেছে। কিন্তু সে চাকরী করতে চা না। আমার বউয়েরই এক বান্ধবীর সাথে আমার অনেক ভাল একটা বন্ধুত্ব হয়েছিল। ও আমার একঘেয়ে জীবনটা একটু রঙ্গিন করেছিল।

মেয়েটি আমার অফিসের পাশে একটা মহিলা হোস্টেলে থাকে। মাঝে মাঝে আমার অফিসেও আসে। মাঝে মাঝে আমরা লাঞ্চ করি বাইরে। আমার বউ তাঁর বান্ধবীর সাথে মেলামেশা একদম এ পছন্দ করে নাহ। মেয়েটি আমার বউয়ের ক্লোজ বান্ধবী, কিন্তু দুইজনই দুইজনকে অনেক হিংসা করে । আমার বউ বলে বান্ধবী অনেক আলট্রা মডার্ন। সব দিক দিয়েই। ওর অনেকগুলা প্রেমিকও ছিল আগে।

একদিন অফিস থেকে বাসাতে ফিরে দেখি বউ তাঁর বান্ধবীর সাথে ফোনে কথা বলছে আর অনেক ঝগড়া করছে আমাকে নিয়ে। আমাকে দেখে ফোন রেখে আমার সাথে ঝগড়া শুরু করে। আমি ওইদিন রাগ করে বাসা থেকে বের হয়ে যাই গাড়ি নিয়ে।

এক পর্যায়ে বান্ধবীকে ফোন দিলাম। সেও অনেক আপসেট ছিল আমারই মত। ওকে হোস্টেল থেকে পিক করে নিলাম। তারপর দুজনে লং ড্রাইভ এ গেলাম। একটা নির্জন রাস্তাই এসে গাড়ির স্টার্ট বন্ধ করে আমি ওর হাত ধরলাম। কিস করলাম। আমরা দুজনেই সোমার ব্যবহার এ অনেক আপসেট ছিলাম। পৃথিবীর সব চিন্তা বাদ দিয়ে সেদিন আমরা শারীরিক সম্পর্কে মেতে উঠি। ওইদিন ভোরে ঢাকাতে ফিরি।

এরপর থেকে বান্ধবীকে নিয়ে মাঝে মাঝে রুমডেট করতাম ঢাকার বড়বড় হোটেলগুলাতে। যেহেতু আমরা কিছু না করেই বউ আমাদেরকে সন্দেহ করে, তাই আমি এগুলা করি। আমাকে একটু পরামর্শ দিবেন, আমি এখন কী করবো? আমার কী করা উচিৎ?

সমাধান

ভাই, আমি জানিনা আপনি এটা পড়বেন কিনা।
আমার গালির ভাণ্ডার খুব বেশি না। তারপরেও, মনে প্রাণে যতগুলো জানি ততগুলো দিতে ইচ্ছে করছে।
আপনাকে আর আপনার পরকীয়ার সঙ্গীকে।
আচ্ছা, বিয়েটাকি আপনার ইচ্ছে অনুযায়ী হয়েছিলো? তাহলে এমন কেন করলেন? মাত্র এক বছরের মাথায় আপনার বোরিং লাগতে শুরু করলো? আর তাই নিজের স্ত্রীয়ের সাথে রোমান্সের স্পার্ক না ঘটিয়ে শুরু করলেন এক বাজে মেয়ের সাথে পরকীয়া।
আপনার তো মনে হচ্ছে ভালোই টাকা পয়সা , চেষ্টা করেছিলেন কোথাও ঘুরে আসতে দুজনে? মাঝে মাঝে ডিনার বা লাঞ্চের সময় স্ত্রীকে ডেকে এনে একসাথে লাঞ্চ করা ইত্যাদ করেছিলেন?
আচ্ছা, বাদ দেন নিদেনপক্ষে কোনোদিন একসাথে ভালো সময় কাটিয়েছিলেন? স্ত্রীকের নিয়ে গিয়েছিলেন লং ড্রাইভে?
একঘেয়ে জীবন রঙ্গিন করার পরকীয়া ছাড়া আরো অনেক উপায় আছে।
নিজের বোঝার ক্ষমতা যখন নাই ঐ মেয়ের ক্লাস তারমানে আপনি নিজেও ঐ ক্লাসের।

আপনার স্ত্রী যে রিএকশন করেছে তা ১০০% স্বাভাবিক। অন্য কোনো মেয়ে তো এতোদূর আগানো তো দূরের কথা মিশতেই দিতো না। মেয়েটাকে এভাবে ঠকাচ্ছেন দুজনে!!!

আপনি মেয়েটাকে মুক্ত করে দিন । আপনি আপনার পরকীয়ার প্রেমিকাকে নিয়ে ” পৃথিবীর সব চিন্তা বাদ দিয়ে শারীরিক সম্পর্কে মেতে উঠেন ” আর বড় বড় হোটেলে রুম ডেটে যান, ইচ্ছে হলে দুজনে নরকেও যেতে পারেন, কিন্তু প্লিজ এই মেয়েটির সাথে আর অন্যায় করবেন না মানুষের বাচ্চা হলে।

আর, আপনার মতো মানুষেরা যা করে, ডিভোর্সের সময় নিজের দোষ ঢেকে দোষ পুরোপুরি স্ত্রীকে দিয়ে দেয় , এটা করবেন না, ইমান বলে কিছু অবশিষ্ট থাকলে। সত্যিটা জানাবেন।

রুমানা আপু, এই প্রথমার একমত না আপনার সাথে – স্ত্রীর কাছে ফিরে আসতে বলতাম যদিনা সে বলতো, “যেহেতু আমরা কিছু না করেই বউ আমাদেরকে সন্দেহ করে, তাই আমি এগুলা করি” । এই লোক জাতে চিটার, শয়তান আর লুচ্চা। সামনে সুযোগ পেলে আবার বৌ এর কোনো দোষ ধরে আরেকটা পরকীয়া করবে।

বিস্তারিত জানতে ছবিতে ক্লিক করুন

Loading...
Loading...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*